স্ত্রীকে তালাক দিয়েও শারীরিক সম্পর্ক, ধর্ষণ মামলায় যাবজ্জীবন

স্ত্রীকে তালাক দিয়েও শারীরিক সম্পর্ক, ধর্ষণ মামলায় যাবজ্জীবন

ফাইল ছবি

অনলাইন ডেস্ক:


শেরপুরে তালাকের পরও তা গোপন রেখে দীর্ঘ ১৯ মাস তালাকপ্রাপ্তা স্ত্রীর সাথে শারীরিক সম্পর্কের অভিযোগে ধর্ষণের মামলায় শাহ আলী (৪৪) নামে একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। একই সাথে তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়।মঙ্গলবার দুপুরে প্রধান অভিযুক্ত শাহ আলীর অনুপস্থিতিতে ওই রায় ঘোষণা করেন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. আখতারুজ্জামান।

শাহ আলী শ্রীবরদী উপজেলার গড়জরিপা এলাকার কৃষক আবু বকরের ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, শেরপুর সদর উপজেলার মধ্য বয়ড়া গ্রামে কৃষক পরিবারের মেয়েকে বিয়ে করেন শাহ আলী। ঘর-সংসারের এক পর্যায়ে দাম্পত্য জীবনে বনিবনা না হওয়ার দরুন শাহ আলী ২০১২ সালের ১৩ মে স্ত্রীকে তালাক দেন। কিন্তু সেই তালাকের বিষয়টি গোপন রেখে ২০১৪ সালের ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত তালাকপ্রাপ্তা স্ত্রীর সাথে শারীরিক সম্পর্ক চালিয়ে যান শাহ আলী। পরে বিষয়টি অবগত হয়ে ওই গৃহবধূ ২০১৫ সালের ২৫ জানুয়ারি শাহ আলী এবং তার মা-বাবাসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। তদন্ত শেষে একই বছরের ৮ জুন ৪ জনের বিরুদ্ধেই আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন শ্রীবরদী থানা পুলিশ। সেই থেকে শাহ আলী পলাতক আছেন।

মন্তব্য করুন

এই সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




বিজ্ঞাপন

সর্বস্বত্ব সত্বাধিকার সংরক্ষিত © tulshigonga.com © এই পোর্টালের নিউজ ও ছবি অনুমতি ছাড়া কপি নিষেধ  
Design BY NewsTheme