জয়পুরহাটে ব্যবসায়ীর কাছে চাঁদা দাবী, প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে মামলার আসামীরা

জয়পুরহাটে ব্যবসায়ীর কাছে চাঁদা দাবী, প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে মামলার আসামীরা

মিজানুর রহমান মিজান, জয়পুরহাট


জয়পুরহাট সদর উপজেলার জামালপুর চারমাথার মাসুম নামে এক ব্যবসায়ীর কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেছে কতিপয় কিছু চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসীরা। মাসুম চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে তাকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়। এ ঘটনায় জীবনের নিরাপত্তা ও সুষ্ঠু বিচার চেয়ে আদালতে মামলা করেছেন তিনি। আদালত মামলাটি এজাহার হিসেবে গন্য করার জন্য জয়পুরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জকে নির্দেশ করেন। যাহার মামলা নং- ১১, তাং- ০৫/০৪/২০২১।

মামলার আসামীরা হলেন, জামালপুর পশ্চিমপাড়ার দুলুর ছেলে শুভ, দোলোয়ারের ছেলে শামীম, গোলাম রব্বানীর ছেলে আসাদ হোসেন সেতু, মৃত সিরাজুলের ছেলে সাকিল, মৃহ শাহ মোহাতাবের ছেলে দোলোয়ার হোসেন দুলুসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৫/৬ জন।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, জয়পুরহাট জামালপুর এলাকার শ্রীনদী খননের মাটি স্তুপ করে ১নং আসামীর জমির উপর রাখা ছিল। মাটিগুলো সরকারি সম্পত্তি হওয়ায় ব্যবসায়ী মাসুম পানি উন্নয়ন বোর্ড থেকে অনুমতি নিয়ে মেসি ট্রাক্টর নিয়ে মাটি নিতে গেলে আসামীরা সেই মাটি নিতে বাধা দেন। তখন মাসুম এর কারণ জিজ্ঞেস করলে, আসামীরা অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে তার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। অন্যথায় মাটি নিয়ে যেতে দিবে না বলে জানায়। এসময় মাসুম চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে আসামীরা তাকে কিল ঘুষি মেরে আহত করে। মামলা করায় আসামীরা ক্ষুব্ধ হয়ে বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য। মামলাটি তুলে না নিলে ব্যবসায়ী মাসুমকে যে কোন সময় হত্যা করে লাশ গুম করার হুমকিও দেন। এ ব্যাপারে সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরীও করেছি ব্যবসায়ী মাসুম।

ব্যবসায়ী মাসুম সাংবাদিকদের বলেন, মামলা করার পর আসামীরা আরও ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে মামলা তুলে নিতে প্রতিদিন প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। এমন অবস্থায় আমি ও পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে সদর থানায় একটি জিডিও করেছি। জিডি করার পর গত শুক্রবার আমাকে জামালগঞ্জ বাজারে আসামীরা একা পেয়ে কতিপয় সন্ত্রাসীদের সাথে নিয়ে আমার উপর আবারও হামলা চালায়। এসময় আমি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই পুলক সরকারকে ফোন করলে তিনি কোন পদক্ষেপ গ্রহন করেননি। আমি এ হামলায় গুরুতর আহত হয়ে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহন করি।

তিনি আরও বলেন, আসামীরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ তাদেরকে গ্রেপ্তার করছেনা। আমি এ ঘটনায় সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই পুলক সরকার জানান, মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে। দ্রæত আসামীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

মন্তব্য করুন

এই সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




বিজ্ঞাপন

সর্বস্বত্ব সত্বাধিকার সংরক্ষিত © tulshigonga.com © এই পোর্টালের নিউজ ও ছবি অনুমতি ছাড়া কপি নিষেধ  
Design BY NewsTheme